সার্চ করুন


স্বামী বিবেকানন্দ ১৮৯৩ সালের ১১ সেপ্টেম্বর শিকাগোতে বিশ্ব মহাধর্ম সম্মেলনে একটি বক্তৃতা দেন।  সমাজে বিদ্যমান প্রথাবিরোধী হলেও তিনি কখনো ভারতবর্ষের চিরায়ত সত্ত্বাকে অগ্রাহ্য করেননি। 
শিকাগোতে দেয়া স্বামীজীর বক্তব্যের কিছু অংশ আপনাদের জন্য তুলে ধররছি- 

প্রথমে তিনি সবাইকে ধন্যবাদ জানান এই কথাগুলো বলে ,
হে আমেরিকাবাসী ভগিনী ও ভ্রাতৃবৃন্দ, আজ আপনারা আমাদিগকে যে আন্তরিক ও সাদর অভ্যর্থনা করিয়াছেন, তাহার উত্তর দিবার জন্য উঠিতে গিয়া আমার হৃদয় অনিবর্চনীয় আনন্দে পরিপূর্ণ হইয়া গিয়াছে। পৃথিবীর মধ্যে সর্বাপেক্ষা প্রাচীন সন্ন্যাসী-সমাজের পক্ষ হইতে আমি আপনাদিগকে ধন্যবাদ জানাইতেছি। সর্বধর্মের যিনি প্রসূতি-স্বরূপ, তাঁহার নামে আমি আপনাদিগকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করিতেছি। সকল জাতি ও সম্প্রদায়ের অন্তর্গত কোটি কোটি হিন্দু নরনারীর হইয়া আমি আপনাদিগকে ধন্যবাদ দিতেছি।

কিছু কথা বলার পর ভগবানকে উদ্দেশ্য করে নিচের এই অসাধারণ মন্তব্যটি করেন-
বিভিন্ন নদীর উৎস বিভিন্ন স্থানে, কিন্তু তাহারা সকলে যেমন এক সমুদ্রে তাহাদের জলরাশি ঢালিয়া মিলাইয়া দেয়, তেমনি হে ভগবান্, নিজ নিজ রুচির বৈচিত্র্যবশতঃ সরল ও কুটিল নানা পথে যাহারা চলিয়াছে, তুমিই তাহাদের সকলের একমাত্র লক্ষ্য।
আশা করি সবাইকে স্রষ্টা  এই কথাগুলো অনুধাবন করার সামর্থ্য এবং জ্ঞান দান করবেন। 

বিকেকানন্দ আগেও যেমন প্রাসঙ্গিক ছিলেন, এখনো আছেন এবং ভবিষ্যতেও থাকবেন। কারণ, তার এই কথাগুলো কালের সীমারেখাকে অতিক্রম করেছে।


কৃতজ্ঞতা স্বীকারঃ  স্বামী বিবেকানন্দের বাণী ও রচনা
ছবিঃ উইকিমিডিয়া কমন্স থেকে সংগ্রহ করা (Tito Dutta এর প্রতি কৃতজ্ঞতা

logoblog

No comments:

Post a Comment

লেখাটি যদি পড়ে থাকেন, তাহলে আপনার মন্তব্য প্রত্যাশা করছি। সমালোচনা, পরামর্শ কিংবা, প্রাসঙ্গিক যেকোন মত প্রকাশকে আমরা স্বাগত জানাই।