সার্চ করুন

সোমবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২০

নাস্তিকতাবাদ, অজ্ঞেয়বাদ এবং অন্যান্য মতবাদ

  Admin       সোমবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২০

নাস্তিকতাবাদ বলতে আমরা এমন মতবাদকে বুঝি যেখানে ঈশ্বরের বা, কোন সৃষ্টিকর্তার অস্তিত্ব স্বীকার করা হয় না। এর বাইরে আরো কতগুলো মত থাকতে পারে যেগুলো আমরা বাংলা ভাষায় সাধারণত ব্যবহার করি না। প্রাতিষ্ঠানিক ধর্মে বিশ্বাস করে না এমন কিছু মতবাদ থাকতে পারে-
  1. ঈশ্বরের অস্তিত্ব নেই বলে মনে করা 
  2. ঈশ্বরের অস্তিত্ব আছে কি না সেটা জানা সম্ভব না 
  3. ঈশ্বরের অস্তিত্ব আছে কিন্তু পৃথিবীতে প্রচলিত কোন ধর্মই ঠিক না 
  4. মানুষ এবং সমগ্র জগত নিজেই সমষ্টিগতভাবে সব কিছুর স্রষ্টা এবং আলাদাভাবে সৃষ্ট বস্তু/প্রাণী
এক নম্বর দলের লোকদেরকে আমরা ইংরেজীতে Atheist এবং বাংলায় নাস্তিক এবং এই মতবাদকে নাস্তিকতা(Atheism) বলতে পারি।  
দুই নম্বর মতবাদকে বলতে পারি অজ্ঞেয়বাদ বা, Agnosticism। 
তিন নম্বর মতবাদে বিশ্বাসী লোকদের ইংরেজীতে বলা হয় dissenter এবং বাংলায় বলা যেতে পারে প্রাতিষ্ঠানিক ধর্মবিরোধী(একবাক্যে অন্য কিছু বলা যায় মনে হলে কমেন্টে জানাবেন)। ইংরেজীতে বলা হয় Deism।
চার নম্বর দলের অনুসারীদের মতকে বলা যায় অসৃষ্ট(Non Creationalism) মতবাদ(জৈন ধর্মের অনুসারীরা এই মতে বিশ্বাসী)। এজন্য এটাকে ধর্ম না বলে অনেকে দর্শন বলেন, বৌদ্ধ ধর্মের ক্ষেত্রেও এমনটা বলা হয়। তবে, বৌদ্ধ ধর্মে ঈশ্বরের অস্তিত্ব ব্যক্তিরূপে না ভেবে নিয়মরূপে ভাবা হয়।
প্রাতিষ্ঠানিক ধর্মে অবিশ্বাসীদের এর বাইরে আর কোন মত থাকতে পারে বলে এই মুহুর্তে আমার মনে হচ্ছে না। ঈশ্বরে বিশ্বাসীদের মাঝেও একেশ্বরবাদী, সর্বেশ্বরবাদী এবং আরো বিভিন্ন মত রয়েছে।
logoblog

এই লেখাটি পড়ার জন্য ধন্যবাদঃ নাস্তিকতাবাদ, অজ্ঞেয়বাদ এবং অন্যান্য মতবাদ

পূর্বের পোস্ট
« Prev Post
পরের পোস্ট
Next Post »

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

লেখাটি যদি পড়ে থাকেন, তাহলে আপনার মন্তব্য প্রত্যাশা করছি। সমালোচনা, পরামর্শ কিংবা, প্রাসঙ্গিক যেকোন মত প্রকাশকে আমরা স্বাগত জানাই।